শনিবার, ২৬ এপ্রিল, ২০০৮

কবিদের পরাক্রমশালী উদ্যোগ

রূপসী বালিকার মসৃণ ত্বকের মত পিছলে পড়া রোদ
মাথার উপরের গাছে পড়ে ঝলসে দেয় পাতাদের
তাকিয়ে উপরটায় কিছু দেখি না
শুধু ঘোলাটে চোখের তারায় বৈচি খেলে
বিকিরিত আলোর তীর।


দমকা বিস্রস্ত বাতাসে নিঃশ্বাস মেশে আমার
যতটা বিপ্লব জমে আছে, গুমরে কান্নার মত
হুটোপুটি খায় ফুসফুসে তারা অবোধ আক্রোশে।
মুচড়ে বসে পড়ি শুভ্র বিছানায়, দু'পাশে চলে
রিকশা মোটর সাইকেল; প্রেমিকের বক্ষ ডানহাতে
জড়িয়ে চুল উড়িয়ে চলে যায় তপ্ত তরুণী।


এই রোদে একটি বিশ্বকাব্য লেখা হবে, ভাবি আমি
সব দেশে দেশে দেয়া হবে বুলেটিন, কবিদের ডাকা
হবে ছন্দ মিলাতে পরস্পরের। টাকমাথা, দাঁড়িওলা
বুড়োটে তরুণ কবিগণ গাইবে গান,
তুলবে সপ্তর্ষিসুর কণ্ঠে।
এলোমেলো বাতাসে আর ঘোলাটে তীব্র রোদে
মিশে যাবে অমরতা মানবের।
এই গ্যাজেটে একটি ত্রুটি ছিল