মঙ্গলবার, ৭ অক্টোবর, ২০০৮

পতিত নক্ষত্রদলও আমাদের চেয়ে একাকী


জারিত রূপোরঙা জলবুকে নদী, স্থির,
বিষন্ন সার্চলাইট পরশ বুলিয়ে খোঁজে পতিত নক্ষত্রদল
সচকিত পানসি থেকে
ঢেউদোলা আলো নিয়ে
চিকন চিৎকারে মাঝিপুত্র চিরে দেয় বাতাসের দেহ
উজানে স্মৃতি জমিয়ে
আমি ইস্টিমারে সুখেদের জমা রাখি।


জাতশোক ভুলে যাবার আগেই
নিদ্রাহীন সারেঙ
অবলীলায় তোমার মুখ তুলে আনে
নীলোসাদা আলোর মতন গাঢ় হয়ে জ্বলছো তুমি
আমি গালে শিশির মেখেও জেনে যাই,
কুয়াশা কাটলে এজীবন পুরোনো স্বপ্নের মতো
তোমাকে ভুলে নিভে যাবে।


পেছনে ফেনার দাগ মুছে যায়
মীনশরীর-
ফেনা জমছে নখাগ্রে আমিষগন্ধী নেলপলিশের মতো,
একাকী প্লাস্টিকের চেয়ার আর তার পাশে আমি বসে থাকি -


রাত
ঘন
হলে
দূরে
গভীরে
নিবিড়
হলো
বন


পানসি, শুশুক আর ধ্রুবতারাটি
আমাদের মতোই একাকী
সেখানে স্তুপাকার আলো- রঙিন আঁধারে
আমরা একা একা নিজেদের ঘিরে থাকি।

কোন মন্তব্য নেই:

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

এই গ্যাজেটে একটি ত্রুটি ছিল