শনিবার, ২৭ ডিসেম্বর, ২০০৮

ইন্টারভিউয়ের টেবিলের ওপাশে আমি

"'আমাকে খোঁজো না তুমি বহুদিন - কতদিন আমিও তোমাকে
খুঁজি নাকো;-"
এরকমই লিখেছিলেন জীবনবাবু
কলম-নিবের প্যাঁচানো কালো কালো সাপ
সর্পিল ধমনীপথেই সর্‌সর্‌ নেমে গেছিলো।


আমি সেখানে দাঁড়িয়ে থাকিনি ব'লে
জানতে পারিনি কতটা ছোবল কতটা অভিশাপ
মেখেছিল জীবনবাবু'র আস্তিন।


এখন এখানেও শীতঘুম-ভাঙা
প্রকাণ্ড বুভুক্ষু সাপ! তিনটা! চারটা! শতশত!
রোমরন্ধ্র ছিড়ে খুঁড়ে ঢুকে যাচ্ছে মাংসে...


আমি নীলবিষের পুলকানন্দ কুড়িয়ে নিতে থাকি
(এবং এহেন গ্রহণে কোনও লজ্জা লাগে না আমার!)
তাই বলে প্রথাগত প্রাচীন সর্পদল মাথা হেলে
আমার বেশর্‌ম নগ্নত্বকে মানচিত্র উল্কি এঁকে দিতে কুণ্ঠাও করে না।


| | তাঁদের চোখে জীবনবাবু অনেক ভালো লোক ছিলেন | |
আহারে! লোকটা অযথা অসময়ে অকালে
তাঁদের বেকার শীতঘুমে পাঠিয়েই মারা গেলেন?


বিশেষণ-ক্লান্ত সাপ, শেষে, মাথা নেড়ে
পরবর্তী রিফ্লেক্সে সটান ছোবল হানে
করোটির ঠিক জ্যা-বরাবর মাঝখানে
ফুঁসে উঠে ঘাড় ফিরিয়ে বলে,
তুমি একটা চূড়ান্তরকম ফাউল্‌!

কোন মন্তব্য নেই:

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

এই গ্যাজেটে একটি ত্রুটি ছিল