বৃহস্পতিবার, ২৯ জানুয়ারী, ২০০৯

রঁদেভু


"টেবিলের কোণে মেয়েটি বসে ছিল"
এই দৃশ্যটা বানিয়ে আমি দ্বিধায় পড়ি
সেখানে সে বসে ছিল, কি ছিল না
এমন সন্দেহ আমাকে দোটানায় ফেলে।
আবার, আমি দেখেছি এমন দৃশ্যের পেছনেও
কেউ কেউ ঘোলা শরীরে দাঁড়িয়ে থাকে;
মেয়েটি একাই বসে ছিল, বাঁকানো পিঠ টেনে ধরে।


আমি চুলের পাশে উপবৃত্তাকার কাঁধ দেখি
ওড়নার প্রান্তে শাদা পায়রার ভার দেখি,
প্রথাগত চোখ খুলে ভাঁজের নিভৃতে মেলে দেই
কোমল উরুতে খিলখিল হেসে গড়িয়ে দেই মার্বেল
মেয়েটি সুস্মিতা, কিছু মনে করে না।
মার্বেলেরা মেয়েটির কোল ঘেঁষে থাকে
জমাট কোমল স্নেহমেদে লুকোচুরি খেলে
পায়ের নখে গেঁথে যায়।
এর পরে স্যান্ডেল তুলে সে চলে যাবার পর
আমি রেস্তোরাঁর রসুইঘরে পৌঁছে যাই,
তেলমাখা গলিত বাবুর্চি আমাকে স্যালুট দেয়
আমি আন্দাজে হেঁটে এসেছি জেনে সে ও বোকা ওয়েটারটি বিস্মিত হয়
অন্ধরাও নিঁখুত হতে পারে এমন প্রমাণ পাওয়া গেল!


বাবুর্চির চৌকো ছুরিতে আমার আপাত-অনিচ্ছুক মাংসেরা
প্রক্রিয়াজাত হতে থাকে
মেয়েটি ফিরে এসে টিপ্‌সের ঝুড়িতে চোখ দুটো ফিরিয়ে দেয়।





কোন মন্তব্য নেই:

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

এই গ্যাজেটে একটি ত্রুটি ছিল